ওমিক্রনকে পাত্তাই দিচ্ছে না ইপিএল, শতভাগ দর্শক রেখেই ম্যাচ

বিশ্বজুড়ে বাড়ছে ওমিক্রনের প্রকোপ। এর প্রভাব পরতে শুরু করেছে ফুটবল অঙ্গনেও। আক্রান্ত হচ্ছে একের পর এক ফুটবল কর্মকর্তা, বাদ যাচ্ছে না ফুটবলারাও। ফলে ইউয়েফা কর্তৃপক্ষের পরামর্শ স্টেডিয়ামে সীমিত দর্শক রাখা। যদিও ব্যতিক্রম ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ। স্টেডিয়ামের ধারণক্ষমতার শতভাগ দর্শক রেখেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে ম্যাচ। 

করোনায় ধাক্কায় প্রিমিয়ার লিগে স্থগিত হচ্ছে একের পর ম্যাচ। এ মাসেই প্রিমিয়ার লিগে করোনার কারণে ১৭ ম্যাচ স্থগিত হয়েছে । বুন্দেসলিগার বেশ কিছু ক্লাবে করোনা আক্রান্ত ফুটবলারের সংখ্যা ব্যাড়ছে। সিরি আ তে কোভিডের ফলে দলের কম্বিনেশন সাজাতে হিমশিম খাচ্ছে দলগুলো। লা লিগার দুই বিখ্যাত ক্লাব রিয়াল-বার্সেলোনার ১৭ ফুটবলার আক্রান্ত হয়েছেন কোভিডে।

এমন পরিস্থিতিতে ইউয়েফার পরামর্শ স্টেডিয়ামে দর্শক সীমিত রেখে খেলা চালানো। ইউরোপিয়ান ক্লাবগুলো সে মোতাবেক গ্যালারিতে সীমিত সংখ্যক দর্শক মাঠে রেখে খেলা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যদিও বড়দিন ও নতুন বছরের ছুটির জন্য ইপিএল ছাড়া অন্য লিগের খেলা আপাতত বন্ধ আছে। তবে উয়েফার এই পরামর্শ আমলেই নিচ্ছে না ইপিএল কর্তৃপক্ষ। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গ্যালারি ভর্তি দর্শক নিয়ে চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর মধ্যে যা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনাও শুরু হয়েছে।

বুন্দেসলিগা কর্তৃপক্ষ গ্যালারিতে সীমিত সংখ্যক দর্শক মাঠে রেখে খেলা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। স্প্যানিশ লা লিগা জানিয়েছে ১ জানুয়ারী থেকে গ্যালারির ধারণক্ষমতার ৭৫ শতাংশ দর্শক স্টেডিয়ামে ঢুকতে পারবে।

ইতালির সিরি আ কর্তৃপক্ষ ওমিক্রন ইস্যুতে আরও কঠোর। স্টেডিয়ামের ধারণ ক্ষমতার মাত্র ৫০ শতাংশ দর্শক গ্যালারিতে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর ফ্রান্সে মাত্র ৫ হাজার সমর্থক মাঠে রেখে খেলা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ফলে ওমিক্রনের এই উর্ধ্বগামিতার মধ্যে ইপিএল কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত কতটুকু যুক্তিযুক্ত সে প্রশ্ন থেকেই যায়।

পাঠকের মন্তব্য