জমি দখল করেছেন জায়েদ খান- মানববন্ধনে দাবি হিন্দু পরিবারগুলোর

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের জমি ও স্থাপনা দখলের বিরুদ্ধ মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী কিছু পরিবার। রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা দাবি করেন, অন্তর জ্বালা সিনেমার শুটিংয়ের কথা বলে পিরোজপুর সদরে হিন্দু জমি ও ক্লিনিক দখল করেন জায়েদ খান। এর সাথে জড়িত আছেন জায়েদ খানের ভাই ওবায়দুল হক পিন্টু ও শহীদুল হক মিন্টু।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগকারীরা জানান, ২০১৬ সালের ২১ মার্চ রাত ২টায় পাঁচতলা ভবনের পঞ্চম তলায় জায়েদ খান ও তার কিছু অস্ত্রধারী লোক গীতা রানী ও তার পরিবারের ওপর হামলা চালান। এ সময় তারা জোরপূর্বক টাকাপয়সা ও ক্লিনিকের অ্যাম্বুলেন্স লুট করে নিয়ে যান। এসব লুট করার আগে জায়েদ খান গীতা রানীদের মারধর করেন এবং তার স্বামীকে পিটিয়ে ঝিনাইদহে রেললাইনের ওপর ফেলে রেখে চলে যান।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এ বিষয়ে ২০১৬ সালের ২৬ মার্চ তিনি একটি এজাহার দায়ের করেছিলেন। এরপর থেকেই জায়েদ খান তিনি ও তার পরিবারকে নিয়মিত হত্যার হুমকি দিয়ে আসছেন। এ ছাড়া পাঁচতলা বাড়িটির বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন। বর্তমানে তারা ওই বাড়িতে থাকতে পারছেন না।

২০১৮ সালের ১৫ এপ্রিল এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করা হলে মহামান্য হাইকোর্ট আমাদের পরিবারকে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দেন। বর্তমানে আমরা ঢাকায় অবস্থান করছি, তবে আমাদের পিরোজপুরের বাসার সব মালামাল জায়েদ খান ও তার গং লুট করে নিয়ে গেছে। এ বিষয়ে গত ৬ জুন ২০১৮ সালে করা মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। মামলা নম্বর ০৯, ১৮৫/১৮।

আমরা ভুক্তভোগী পরিবার ভূমিদস্যু জায়েদ খান গংয়ের হাত থেকে রক্ষা পেতে সবার সহযোগিতা কামনা করছি

পাঠকের মন্তব্য