এ বছর কত মানুষ হজে যেতে পারবেন- জানালেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

বাংলাদেশ থেকে এ বছর ৫৭ হাজার ৮৫৬ জন হজে যেতে পারবেন বলে জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। আজ বুধবার (১৩ এপ্রিল) এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

করোনার নিষেধাজ্ঞা শিথিল হওয়ায় দীর্ঘ দুই বছর পর এবার সৌদি আরব ১০ লাখ মুসল্লিকে হজ করার সুযোগ করে দিচ্ছে। সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অংশগ্রহণকারীদের অবশ্যই ৬৫ বছরের কম বয়সী হতে হবে এবং করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিনের পূর্ণ ডোজ দেওয়া থাকতে হবে।  

দেশের বাইরে থেকে আসা অংশগ্রহণকারীরাও হালনাগাদ করা কোভিড পিসিআর টেস্ট ও অন্যান্য স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর হজে অংশ নিতে পারবেন। সৌদির উদ্দেশে রওনা হওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ সনদ লাগবে।

গত বছর ইসলামের পাঁচটি মূল স্তম্ভের একটি হজে মাত্র ৬০ হাজার মানুষকে (যারা সৌদিতে বসবাস করছেন এমন মানুষ) অংশগ্রহণের অনুমতি দিয়েছিল সৌদি আরব। মহামারির আগে যে সংখ্যাটা ছিল প্রায় ২৫ লাখ।

এদিকে সৌদিতে ওমরাহ পালনের জন্য বিদেশি মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। পবিত্র রমজানের প্রথম সপ্তাহে ওমরাহ হজ পালনে রেকর্ড সংখ্যক মুসল্লি সৌদি আরব উপস্থিত হয়েছেন। মক্কায় মুসল্লিদের চাপ সামলাতে কাবা শরিফে সম্প্রসারিত অংশে খুলে দেওয়া হয়েছে ৮০টি নতুন হল।

এরইমধ্যে পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে প্রতি বছর সারা বিশ্বের লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি ওমরাহ পালনের জন্য মক্কা নগরীতে উপস্থিত হন। সারা বছর মুসল্লিদের সরব উপস্থিতি থাকলেও রমজানে ওমরাহ পালনে মুসল্লিদের চাপ থাকে সবচেয়ে বেশি।

গেল দুবছর করোনা মহামারিতে নানা বিধিনিষেধ থাকায় বিদেশি মুসল্লিদের তেমন উপস্থিতি ছিল না। তবে এবারের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন। সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটিতে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত আট লাখ ৯৫ হাজার ৪৯৯ জন বিদেশি নাগরিক ওমরাহ পালনের জন্য সৌদিতে এসেছেন।

সৌদি আরবে করোনার সব ধরনের বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ায়, এবারের রমজানের শুরু থেকেই বিদেশি মুসল্লিদের ঢল নেমেছে পবিত্র মক্কা নগরীতে। অতিরিক্ত চাপ সামাল দিতে কাবায় সম্প্রসারিত অংশে খুলে দেওয়া হয়েছে ৮০টি নতুন হল।
 

পাঠকের মন্তব্য