অর্থ বরাদ্দের অভাবে বন্ধ হয়ে গেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা ওয়েবসাইট।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক- শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি পরিচালনা করতে হয় গবেষণাধর্মী কার্যক্রম । এজন্য গবেষণা জার্নালে; বিশেষ করে পিয়ার অত্যাবশ্যক বিষয় হচ্ছে রিভিয়্যুড জার্নালে প্রবেশাধিকার থাকা ।

আর দীর্ঘদিন ধরেই বন্ধ হয়ে আছে বিশ্ববিদ্যালয়ের jstor.org ও muse.jhu.edu ডাটাবেজ ওয়েব সাইট। অর্থের অভাবে সাবস্ক্রিপশন বন্ধ করে দেয়ায় এই ডাটাবেজগুলোতে প্রবেশ করা যাচ্ছে না বিগত কয়েকমাস ধরে  । এতে প্রায় স্থগিত হয়ে পড়েছে  বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যায়তনিক গবেষণার কাজ ।আগ্রহ হারাচ্ছেন তরুণ গবেষকরা।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সমস্যাটি দ্রুত সমাধানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি দাবি জানায় বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদ। একই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ থেকে প্রকাশিত জার্নালে শিক্ষার্থীদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করার পাশাপাশি নিজস্ব ডাটাবেজ তৈরীর উদ্যোগ নিতে প্রশাসনের প্রতি আহবান জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, একসময় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন জার্নালের কপি রাখা হতো। দীর্ঘদিন যাবৎ তা বন্ধ আছে। এদিকে অধিক সমৃদ্ধ জার্নাল সমূহের হার্ড কপির গ্রাহকশীপ বন্ধ করে দেয়ায় সেসব জার্নালের মূল্য অধিকাংশ গবেষক শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের আয়ত্তের বাইরে পড়ে যায়।

 

ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ ও গবেষণা কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক- শিক্ষার্থীদের জার্নাল পড়া ও ডাউনলোড করার প্রধানতম মাধ্যম ছিল jstor.org ও muse.jhu.edu ডাটাবেজ দুটি। বিশ্ববিদ্যালয় কতৃক এই ডাটাবেজগুলোর সাবস্ক্রিপশন করা থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ও একাডেমিক কাজে যে ওয়াইফাই এবং যে আইপি এড্রেস ব্যবহার করা হয়। এর মাধ্যমে শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা সহজেই ডাটাবেইজগুলোতে প্রবেশ করতে পারতেন। কিন্তু অর্থের অভাবে সাবস্ক্রিপশন বন্ধ করে দেয়া এবং রিনিউ না করায় কয়েকমাস ধরে কেউ এই ডাটাবেজগুলিতে প্রবেশ করতে পারছেন না। এতে  ব্যহত হচ্ছে বিভাগগুলোর শিক্ষক- শিক্ষার্থীদের আন্তঃশাস্ত্রীয় জ্ঞানচর্চার সুযোগ।

SHARE