পটুয়াখালী প্র‌তি‌নি‌ধি:

‌নি‌জে‌কে সাংবা‌দিক দা‌বি ক‌রে সাধারণ মানুষ‌কে হ‌য়রানী এবং এলাকায় চাঁদাবা‌জির অ‌ভি‌যোগ উ‌ঠে‌ছে এক যুব‌কের বিরু‌দ্ধে।  অ‌ভিযুক্ত যুব‌কের নাম মো: জিয়াদ (২০)। সে পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবা‌লি উপ‌জেলাধীন মৌডুবী ইউ‌নিয়‌নের  ম‌ফিজুল শিকদা‌রের ছে‌লে।

‌খোঁজ নি‌য়ে জানা যায়, কো‌নো প‌রি‌চিত গণমাধ্য‌মের প্র‌তি‌নি‌ধি না হ‌য়েও নি‌জে‌কে সাংবা‌দিক ব‌লে দা‌বি ক‌রে জিয়াদ। সে  নি‌জে‌কে  কখনও মানবা‌ধিকার কর্মী, কখনও সাংবা‌দিক, কখনও আবার  স্বেচ্ছা‌সেবক  ব‌লে দা‌বি ক‌রেন। বি‌ভিন্ন সময় জে‌লে‌দের ট্রলার আট‌কে টাকা দা‌বি করা, বাল্য বিবাহ হ‌চ্ছে দা‌বি ক‌রে বি‌য়ে বা‌ড়ি‌তে  টাকা আদায়, অ‌হেতুক অ‌ভি‌যো‌গে ফাঁসা‌নোর হুম‌কি সহ বি‌ভিন্ন উপা‌য়ে অর্থ হা‌তি‌য়ে  নেয়ার অ‌ভি‌যোগ র‌য়ে‌ছে তার বিরু‌দ্ধে। এছাড়া স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্র‌তি‌নিধিরা  তা‌কে সমীহ ক‌রে ত্রা‌নের অংশ দি‌তে  বাধ্য হন ব‌লেও  দা‌বি ক‌রেন এ যুবক। তার বিরু‌দ্ধে একা‌ধিক ইউ‌পি  সদস্য‌কে  হুম‌কি দিয়ে অর্থ আদা‌য়ের চেষ্টার অ‌ভি‌যোগ র‌য়ে‌ছে। এছাড়া ক‌রোনায় ঝু‌কিপূর্ণ প‌রি‌স্থি‌তিতেও  তার ছত্রছায়ায়  ক‌য়েকজন স্থানীয় সন্ধ্যার প‌রে দোকান খোলা রাখ‌ছেন ব‌লেও অ‌ভি‌যোগ র‌য়ে‌ছে।

জানা যায়, পু‌লিশ কিংবা স্থানীয় প্রশাসন আসার আ‌গেই তথ্য দি‌য়ে  দোকান ব‌ন্ধের জন্য ব‌লেন। এতে দোকানদারগণ অ‌বৈধভা‌বে দোকান খোলা রাখ‌লেও  জ‌রিমানা গুন‌তে হয় না,  অপর‌দি‌কে  ব্য‌ক্তিগত সু‌বিধা গ্রহণ ক‌রে জিয়‌াদ।

 

‌মৌডুবীর স্থানীয় এক ব্য‌ক্তি নাম প্রকা‌শ না করা শ‌র্তে ব‌লেন, জিয়াদ আমার মে‌য়ের বি‌য়ের সময় জোরপূর্বক টাকা আদায় ক‌রে‌ছে। বি‌য়ে বা‌ড়ির প‌রি‌বেশ নষ্ট যা‌তে না ক‌রে এজন্য বাধ্য হ‌য়ে  টাকা দি‌য়ে‌ছি।’

এছাড়া স্থানীয়‌দের ই‌লি‌শের বো‌টে হানা দি‌য়ে  অর্থ আদা‌য়ের অ‌ভি‌যোগও ক‌রেন তি‌নি।

 

‌জিয়া‌দের বিরু‌দ্ধে অ‌ভি‌যোগ ক‌রে এক ইউপি সদস্য ব‌লেন, তার কি প‌ত্রিকা আ‌ছে তার খবর নাই,  উপ‌জেলার  এক সাংবা‌দি‌কের  দাপ‌টে  সে  চাঁদাবা‌জি ক‌রে। কখন কি দুর্নাম রটায়, তাই  বাধ্য হ‌য়ে কিছু  দি‌য়ে রাখ‌তে হয়।’

এসব বিষ‌য়ে অ‌ভিযুক্ত জিয়াদ নি‌জে‌কে সংবাদকর্মী দা‌বি ক‌রে ব‌লেন, আ‌মি কারও কাছ থে‌কে অন্যায়ভা‌বে টাকা দা‌বি ক‌রি না।’ ত‌বে এক ভারপ্রাপ্ত ইউ‌পি  সদস্য তা‌কে ত্রা‌নের চাল দি‌য়ে‌ছেন  ব‌লে তি‌নি স্বীকার ক‌রে‌ছেন। জিয়াদ একটা অনলাইন ও অখ্যাত প‌ত্রিকায়  কাজ কর‌ছেন ব‌লেও দা‌বি ক‌রেন। এছাড়া জিয়াদ উপ‌জেলার  সাংবা‌দিক‌দের সা‌থে প‌রি‌চিত এবং  তা‌দের  তথ্য দি‌য়ে থা‌কেন ব‌লে জানান।

এ বিষ‌য়ে রাঙ্গাবালী উপ‌জেলা নির্বাহী অফিসার মো: মাশফাকুর রহমান ব‌লেন, জিয়াদ না‌মে কো‌নো সাংবা‌দিক আমার প‌রি‌চিত নেই। কারও বিরু‌দ্ধে এমন অ‌ভি‌যোগ পে‌লে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া  হ‌বে।’

SHARE