রাজধানীর মহাখালী এলাকার ডিওএইচএসে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন ওরফে সম্রাটের বাসায় তল্লাশি চালিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

রোববার বিকাল ৩টার দিকে মহাখালী ডিওএইচএসের ২৯ নম্বর সড়কে ও ৩৯২ নম্বর বাড়িতে এ অভিযান চালানো হয়।

র‍্যাব-২ এর অধিনায়ক (সিও) আশিক বিল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এই বাসায় থাকতেন সম্রাটের দ্বিতীয় স্ত্রী শারমিন চৌধুরী। তিনি জানান, সম্রাটের সঙ্গে তার দুই বছর ধরে যোগাযোগ নেই। তাদের মধ্যে বিচ্ছেদও হয় নাই। সম্রাট এই বাসায় আসতেন না।

শারমিন জানান, সম্রাটের নেশা ছিল জুয়া খেলা। তিনি ক্যাসিনো ব্যবসার সব টাকা দলের জন্য ব্যয় করতেন।

সম্রাট জুয়া খেলতে সিঙ্গাপুর যেতেন সেটি স্বীকার করেছেন শারমিন চৌধুরী। তিনি জানান, সেখানে সম্রাটের নারী বন্ধু ছিল। তার সঙ্গে সময় কাটাতেন সম্রাট।

এর আগে শনিবার গভীর রাতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানার আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জশ্রীপুর গ্রাম থেকে সম্রাট ও আরমানকে আটক করা হয়। পরে তাকে নিয়ে রাজধানীর কাকরাইলে তার কার্যালয় এবং শান্তিনগরে তার বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার মতিঝিলের ক্লাবপাড়ায় র‌্যাবের অভিযানে অবৈধ ক্যাসিনো চলার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর থেকে আলোচনায় ছিলেন যুবলীগ নেতা সম্রাট। সেদিন যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া গ্রেপ্তার হওয়ার পর সদলবলে কাকরাইলে সংগঠনের কার্যালয়ে অবস্থান নিয়ে রাতভর সেখানে ছিলেন সম্রাট। কিন্তু এরপর নিরুদ্দেশ হন তিনি।

SHARE