A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: fopen(/var/cpanel/php/sessions/ea-php74/ci_sessione15af0b9ca371ffb6753adf1485a557c766d4403): failed to open stream: Disk quota exceeded

Filename: drivers/Session_files_driver.php

Line Number: 172

Backtrace:

File: /home/bdvoice/public_html/application/controllers/SS_shilpi.php
Line: 6
Function: __construct

File: /home/bdvoice/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: session_start(): Failed to read session data: user (path: /var/cpanel/php/sessions/ea-php74)

Filename: Session/Session.php

Line Number: 143

Backtrace:

File: /home/bdvoice/public_html/application/controllers/SS_shilpi.php
Line: 6
Function: __construct

File: /home/bdvoice/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

ড্রোন ইস্যুতে ইউক্রেনকে যে চ্যালেঞ্জ দিল ইরান

ড্রোন ইস্যুতে ইউক্রেনকে যে চ্যালেঞ্জ দিল ইরান

ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধে রাশিয়াকে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করছে ইরান। সম্প্রতি এমন অভিযোগ উঠেছে পশ্চিমা বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে। এ ছাড়া ইউক্রেনও প্রায়ই অভিযোগ করছে ইরানি ড্রোন দিয়ে ইউক্রেনে হামলা করছে রাশিয়া।

এবার বিষয়টি নিয়ে চ্যালেঞ্জ জানাল ইরান। যুদ্ধে ব্যবহার করার জন্য রাশিয়াকে কমব্যাট ড্রোন সরবরাহের অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে তেহরান বলেছে, কিয়েভের কাছে এ সংক্রান্ত কোনো প্রমাণ থাকলে তা যেন সরবরাহ করে।

বুধবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আব্দুল্লাহিয়ান ক্রোয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী গর্ডান গার্লিক র্যাডম্যানের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে ইউক্রেনের প্রতি ওই চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন। 

 

তিনি বলেন, ইউক্রেন যুদ্ধে ইরানি ড্রোন ব্যবহার সংক্রান্ত যে কোনো প্রমাণ তুলে ধরার জন্য আমরা কিয়েভের প্রতি আহ্বান জানিয়েছি।

ইউক্রেনে ও আমেরিকাসহ পশ্চিমা দেশগুলো দাবি করছে, ইউক্রেনে হামলা চালানোর জন্য রাশিয়ার হাতে অন্যান্য সমরাস্ত্রের সঙ্গে কমব্যাট ড্রোন তুলে দিয়েছে ইরান। দৃশ্যত ওই বিষয়ে কথা বলার জন্য বিশেষ করে তেহরানকে মস্কোর হাতে আর ড্রোন তুলে না দিতে অনুরোধ করার জন্য ক্রোয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার ইরানি সমকক্ষকে টেলিফোন করেন।

এ সময় আব্দুল্লাহিয়ান আরও বলেন, আমরা যুদ্ধের উভয়পক্ষের কাছে যে কোনো ধরনের সমরাস্ত্র তুলে দেওয়ার বিরোধিতা করে এসেছি।

এ সময় মস্কোর সঙ্গে তেহরানের বহু বছরের সামরিক সহযোগিতার কথা স্বীকার করেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তবে তিনি এ কথাও বলেন, ইরান শুরু থেকে রাশিয়ার ইউক্রেন অভিযানের বিরোধিতা করে এসেছে এবং মস্কোকে কোনো অস্ত্র সরবরাহ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসের কানয়ানিও ইউক্রেন যুদ্ধে ইরানি ড্রোন সরবরাহের অভিযোগ ‘ভিত্তিহীন’ বলে নাকচ করে দিয়েছিলেন। 

সূত্র: প্রেসটিভি

পাঠকের মন্তব্য